top of page
  • Writer's pictureLacsb.com

বাংলাদেশে শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তি এবং বিরোধ: আইনি সুরক্ষা এবং সমাধানের জন্য একজন আইনজীবীর গাইড




বাংলাদেশে, একটি শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তি একটি আইনি দলিল যা একটি কোম্পানিতে শেয়ারহোল্ডারদের অধিকার, দায়িত্ব এবং বাধ্যবাধকতার রূপরেখা দেয়। শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থ রক্ষা এবং উদ্ভূত বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য এটি একটি অপরিহার্য হাতিয়ার। একটি শেয়ারহোল্ডারের চুক্তি শেয়ারহোল্ডারদের প্রত্যাশার একটি পরিষ্কার বোঝার প্রদান করে এবং একটি বিরোধের ক্ষেত্রে অনুসরণ করা পদ্ধতিগুলি নির্ধারণ করে।


এই নিবন্ধে, আমরা শেয়ারহোল্ডার চুক্তির গুরুত্ব, বাংলাদেশে উদ্ভূত সাধারণ বিরোধ এবং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য উপলব্ধ আইনি সুরক্ষা এবং সমাধানের গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করব।



শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তির গুরুত্ব


একটি কোম্পানিতে শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থ রক্ষার জন্য শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তি অপরিহার্য। একটি ভালভাবে খসড়া করা শেয়ারহোল্ডার চুক্তি শেয়ারহোল্ডারদের প্রত্যাশা সম্পর্কে একটি পরিষ্কার বোঝার ব্যবস্থা করতে পারে এবং বিরোধের ক্ষেত্রে অনুসরণ করা পদ্ধতিগুলি নির্ধারণ করতে পারে। চুক্তিতে পরিচালকদের ভূমিকা ও দায়িত্ব, লাভের বন্টন এবং শেয়ার স্থানান্তরের প্রক্রিয়ার রূপরেখাও থাকতে পারে।


শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তিতে এমন বিধানও অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে যা সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডারদের সংখ্যাগরিষ্ঠ শেয়ারহোল্ডারদের দ্বারা অন্যায় আচরণ করা থেকে রক্ষা করে। উদাহরণস্বরূপ, চুক্তিতে এমন একটি বিধান অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে যার জন্য কোম্পানিকে কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিতে হবে।



বাংলাদেশে শেয়ারহোল্ডার চুক্তিতে সাধারণ বিরোধ

বিভিন্ন কারণে শেয়ারহোল্ডার চুক্তিতে বিরোধ দেখা দিতে পারে। বাংলাদেশে উদ্ভূত সবচেয়ে সাধারণ বিরোধগুলি নিম্নরূপ:


1. লাভের বণ্টন নিয়ে বিরোধ - শেয়ারহোল্ডাররা লাভের বণ্টন নিয়ে মতানৈক্য করতে পারে, যার ফলে বিরোধগুলি সমাধান করা কঠিন হতে পারে।


2. কোম্পানির ব্যবস্থাপনা নিয়ে বিরোধ - শেয়ারহোল্ডাররা কোম্পানিকে কীভাবে পরিচালিত হয় তা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারে, যার ফলে পরিচালকদের নিয়োগ, কোম্পানির কৌশল এবং অন্যান্য ব্যবস্থাপনার সিদ্ধান্ত নিয়ে বিরোধ দেখা দিতে পারে।


3. শেয়ার হস্তান্তর নিয়ে বিরোধ - শেয়ারহোল্ডাররা শেয়ার হস্তান্তরের বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারে, যার ফলে শেয়ারের মূল্যায়ন এবং সেগুলি হস্তান্তরের প্রক্রিয়া নিয়ে বিরোধ দেখা দিতে পারে।


4. কোম্পানির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বিরোধ - শেয়ারহোল্ডাররা কোম্পানির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারে, যার ফলে পরিচালক নিয়োগ এবং কোম্পানির কৌশল নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়।


5. শেয়ারহোল্ডার চুক্তির লঙ্ঘন নিয়ে বিরোধ - শেয়ারহোল্ডার চুক্তির শর্তাবলী লঙ্ঘন করা হয়েছে কিনা তা নিয়ে শেয়ারহোল্ডাররা দ্বিমত পোষণ করতে পারে, যার ফলে চুক্তির প্রয়োগ নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়।




শেয়ারহোল্ডারদের জন্য আইনি সুরক্ষা এবং রেজোলিউশন

বাংলাদেশে, শেয়ারহোল্ডারদের আইনি সুরক্ষা এবং বিরোধের ক্ষেত্রে তাদের কাছে রেজুলেশন উপলব্ধ রয়েছে। শেয়ারহোল্ডারদের জন্য উপলব্ধ সবচেয়ে সাধারণ আইনি সুরক্ষা এবং রেজোলিউশনগুলি নিম্নরূপ:


1. শেয়ারহোল্ডারদের সভা - শেয়ারহোল্ডারদের কোনো বিরোধ বা উদ্ভূত সমস্যা নিয়ে আলোচনা করার জন্য শেয়ারহোল্ডারদের সভা আহ্বান করার অধিকার রয়েছে। শেয়ারহোল্ডাররাও কোম্পানির ব্যবস্থাপনা এবং লাভের বণ্টনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে এই ফোরামটি ব্যবহার করতে পারেন।


2. শেয়ারহোল্ডারদের রেজোলিউশন - শেয়ারহোল্ডাররা শেয়ারহোল্ডারদের মিটিংয়ে বিরোধ নিষ্পত্তি করতে বা কোম্পানির ব্যবস্থাপনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে একটি রেজোলিউশন পাস করতে পারেন। শেয়ারহোল্ডাররাও একজন পরিচালককে অপসারণ বা একজন নতুন নিয়োগ করার জন্য একটি রেজোলিউশন পাস করতে পারেন।


3. মধ্যস্থতা - শেয়ারহোল্ডাররা আদালতে না গিয়ে বিরোধ সমাধানের জন্য মধ্যস্থতা ব্যবহার করতে পারেন। মধ্যস্থতা হল একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রক্রিয়া যেখানে একটি নিরপেক্ষ তৃতীয় পক্ষ পক্ষগুলিকে পারস্পরিকভাবে গ্রহণযোগ্য চুক্তিতে পৌঁছাতে সাহায্য করে।


4. আরবিট্রেশন - শেয়ারহোল্ডাররা আদালতে যাওয়ার পরিবর্তে বিরোধ সমাধানের জন্য সালিশ ব্যবহার করতে পারেন। আরবিট্রেশন এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে একজন স্বাধীন সালিস প্রমাণ শুনেন এবং একটি সিদ্ধান্ত নেন যা পক্ষগুলির জন্য বাধ্যতামূলক।


5. কোর্ট অ্যাকশন - শেয়ারহোল্ডাররা তাদের অধিকার প্রয়োগ করতে বা শেয়ারহোল্ডার চুক্তির কোনো লঙ্ঘনের জন্য ক্ষতিপূরণ চাইতে আদালতের ব্যবস্থা নিতে পারেন।




দৃশ্যকল্প এবং উদাহরণ

শেয়ারহোল্ডার চুক্তির গুরুত্ব এবং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য উপলব্ধ আইনি সুরক্ষা এবং রেজোলিউশনের গুরুত্ব বোঝাতে, আমরা নীচে কিছু পরিস্থিতি এবং উদাহরণ প্রদান করব:



দৃশ্যপট 1:

ABC লিমিটেড চার শেয়ারহোল্ডারের মালিকানাধীন একটি কোম্পানি। শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে দুজনের 60% শেয়ার আছে, অন্য দুজনের কাছে 40% শেয়ার আছে। দুটি সংখ্যাগরিষ্ঠ শেয়ারহোল্ডার একটি নতুন প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে কোম্পানির লাভ ব্যবহার করতে চান. তবে সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডাররা চান যে মুনাফা শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে লভ্যাংশ হিসেবে বণ্টন করা হোক।


সমাধান:

এই পরিস্থিতিতে, সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডাররা একটি শেয়ারহোল্ডারদের সভা আহ্বান করতে পারে এবং লাভগুলিকে লভ্যাংশ হিসাবে বিতরণ করার জন্য একটি রেজোলিউশন পাস করতে পারে। সংখ্যাগরিষ্ঠ শেয়ারহোল্ডাররা রেজোলিউশন মেনে চলতে অস্বীকার করলে, সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডাররা তাদের অধিকার প্রয়োগ করতে আইনি পদক্ষেপ নিতে পারে।


দৃশ্যকল্প 2:

XYZ লিমিটেড হল দুটি শেয়ারহোল্ডারের মালিকানাধীন একটি কোম্পানি। কোম্পানিতে শেয়ারহোল্ডারদের সমান শেয়ার রয়েছে এবং উভয়ই কোম্পানির পরিচালক। দুই শেয়ারহোল্ডার কোম্পানির কৌশল নিয়ে একমত নন, একজন ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে চান এবং অন্যজন বিদ্যমান ব্যবসায় ফোকাস করতে চান।


সমাধান:

এই পরিস্থিতিতে, শেয়ারহোল্ডাররা তাদের বিরোধ সমাধানের জন্য মধ্যস্থতা ব্যবহার করতে পারেন। একটি নিরপেক্ষ তৃতীয় পক্ষ কোম্পানির কৌশল সম্পর্কে একটি পারস্পরিক গ্রহণযোগ্য চুক্তিতে পৌঁছাতে দলগুলোকে সাহায্য করতে পারে। যদি মধ্যস্থতা ব্যর্থ হয়, শেয়ারহোল্ডাররা তাদের বিরোধ সমাধানের জন্য সালিশি বা আদালতের পদক্ষেপ নিতে পারে।


দৃশ্যকল্প 3:

পিকিউআর লিমিটেড হল তিনটি শেয়ারহোল্ডারের মালিকানাধীন একটি কোম্পানি। শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে একজন তৃতীয় পক্ষের কাছে তাদের শেয়ার স্থানান্তর করতে চান। তবে, অন্য দুই শেয়ারহোল্ডার তাদের শেয়ার হোল্ডিং কমাতে চান না বলে শেয়ার হস্তান্তর করতে চান না।


সমাধান:

এই পরিস্থিতিতে, শেয়ারহোল্ডাররা শেয়ার হস্তান্তরের প্রক্রিয়া নির্ধারণের জন্য শেয়ারহোল্ডার চুক্তির উল্লেখ করতে পারেন। শেয়ার হস্তান্তর করার আগে চুক্তির জন্য সমস্ত শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতির প্রয়োজন হতে পারে। শেয়ারহোল্ডাররা শেয়ার হস্তান্তরের প্রক্রিয়ায় সম্মত না হলে, তারা বিরোধ সমাধানের জন্য সালিশ বা আদালতের পদক্ষেপ নিতে পারেন।



একটি কোম্পানিতে শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থ রক্ষার জন্য শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তি অপরিহার্য। একটি ভালভাবে খসড়া করা শেয়ারহোল্ডার চুক্তি শেয়ারহোল্ডারদের প্রত্যাশা সম্পর্কে একটি পরিষ্কার বোঝার ব্যবস্থা করতে পারে এবং বিরোধের ক্ষেত্রে অনুসরণ করা পদ্ধতিগুলি নির্ধারণ করতে পারে। বিভিন্ন কারণে শেয়ারহোল্ডার চুক্তিতে বিরোধ দেখা দিতে পারে এবং বিবাদের ক্ষেত্রে শেয়ারহোল্ডারদের আইনি সুরক্ষা এবং রেজোলিউশন পাওয়া যায়। বাংলাদেশে শেয়ারহোল্ডারদের কাছে সবচেয়ে সাধারণ আইনি সুরক্ষা এবং রেজুলেশনগুলি হল শেয়ারহোল্ডারদের মিটিং, শেয়ারহোল্ডারদের রেজোলিউশন, মধ্যস্থতা, সালিশ এবং আদালতের পদক্ষেপ। শেয়ারহোল্ডারদের চুক্তির অধীনে শেয়ারহোল্ডারদের তাদের অধিকার এবং বাধ্যবাধকতা বোঝা এবং প্রয়োজনে আইনি পরামর্শ নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

留言

評等為 0(最高為 5 顆星)。
暫無評等

新增評等
bottom of page